ইনসাইড বাংলাদেশযা ঘটছে

আপনারা কি আমাদের সাথে রঙ্গ-তামাশা করেন?

আমিনুল ইসলাম:

একদিন আগে কক্সবাজারে একদল ইয়াবা ব্যবসায়ী আত্মসমর্পণ করেছে। এরা শুধু আত্মসমর্পণই করেনি, সঙ্গে অনেক ইয়াবা এবং পিস্তলও জমা দিয়েছে। সেই পিস্তলগুলো সব দেখতে আবার একই রকম! শুধু একই রকম না; ছবি দেখে মনে হলো- পিস্তলগুলো সব একই অবস্থায় আছে। মানে কোনটা নতুন কিংবা কোনটা পুরাতন, এমন মনে হয়নি! কি অবাক কাণ্ড! ইয়াবা ব্যবসায়ীরা সবাই একই রকম পিস্তল ব্যবহার করত। আবার সবই দেখতে ব্র্যান্ড নিউ কাঠের পিস্তল!

এর চাইতেও অবাক কাণ্ড হচ্ছে- ইয়াবা ব্যবসার এক নাম্বার আসামী কক্সবাজারের সাবেক সাংসদ বদি নিজে অবশ্য আত্মসমর্পণ করেনি! করেছে- দুই নাম্বার, তিন নাম্বার, দশ নাম্বার কিংবা একশো নাম্বার ইয়াবা ব্যবসায়ীরা! এদের মাঝে অবশ্য বদির ভাই সহ চৌদ্দগুষ্ঠির অনেকেই আত্মসমর্পণ করেছে! এরা আবার রীতিমত ৩২ দাঁত বের করে হাসতে হাসতে আত্মসমর্পণ করেছে! পৃথিবীর ইতিহাসে এমন ঘটনা এর আগে ঘটেছে কিনা আমার অন্তত জানা নেই! যেই লোক মামলার এক নাম্বার আসামী, তিনি নিজে উপস্থিত থেকে দুই নাম্বার, তিন নাম্বার আসামীকে আত্মসমর্পণ করতে দেখছেন এবং ঘোষণা দিয়েছেন- কক্সবাজারকে ইয়াবামুক্ত করেই তিনি ছাড়বেন!

আজ পত্রিকায় পড়লাম সাবেক মন্ত্রী শাজাহান খানকে প্রধান করে সড়ক দুর্ঘটনা কমিটি করা হয়েছে। কিছু দিন আগেই না, স্কুলের ছেলেপেলেরা তার পদত্যাগ চেয়ে রাস্তায় আন্দোলন করেছে? এই খান তো সেই খানই, যিনি কিনা হাসতে হাসতে বলেছেন- এমন দুই-চারটা দুর্ঘটনা ঘটতেই পারে! ওই আন্দোলনের পরই না দেখলাম এই খান সাহাবের শ্রমিক সমাজ আমাদের ছেলেপেলেদের মুখে পেট্রোলের কালি মেখে দিয়েছিল? এরা তো এই শাজাহান খানেরই কর্মী? তো, এরা কেন আমাদের ছেলে-পেলেদের মুখে কালি মেখে দিয়েছিল?

শাজাহান খান

কারণ তারা মানুষ হত্যার লাইসেন্স চায়! আর আজ কিনা শুনছি- এই শাজাহান খানকেই প্রধান করে সড়ক দুর্ঘটনা প্রতিরোধ কমিটি করা হয়েছে। দেশে কি মানুষের অভাব ছিল? ইলিয়াস কাঞ্চনের মতো মানুষরা আজীবন সংগ্রাম করে যাচ্ছে নিরাপদ সড়কের জন্য, আর আপনাদের কমিটির প্রধান হয় শাজাহান খান! আপনারা ইয়াবা ব্যবসায়ীদের আত্মসমর্পণ করান বদির সামনেই। যার ভাই-ব্রাদারসহ আত্মীয়-স্বজন নিজেরাই আত্মসমর্পণ করেছে! সেই বদি আবার বুক উঁচু করে বলে- কক্সবাজারকে ইয়াবা মুক্ত করেই ছাড়ব!

আপনারা কি আমাদের সঙ্গে বাইচালি করেন? আপনাদের সঙ্গে কি আমাদের রঙ্গ-তামাশার সম্পর্ক? নাকি আমাদের আর মানুষ মনে হচ্ছে না?

Facebook Comments

Tags

Related Articles

Back to top button