আপনি-ই সাংবাদিকইনসাইড বাংলাদেশ

পাকিস্তানি আর আমাদের মধ্যে তফাৎটা কোথায়?

পাকিস্তানীরা দীর্ঘ ৩৫ বছর ধরে আমাদের বীরশ্রেষ্ঠ মতিউর রহমানের অনাদরে আর অবহেলায় ফেলে রাখা কবরের উপর লিখে রেখেছিল, “ইধার শো রাহা এক গাদ্দার”!

একটা সময় পর্যন্ত ভাবতাম এর চেয়ে বড় অপমান আর কী হতে পারে! আজ টের পেলাম ভুল ভেবেছিলাম। নিজ দেশেও যে মানুষটাকে অপমান আর অবহেলার চূড়ান্ত করলাম আমরা। অকুতোভয় সাহসী মতিউর রহমান এবং বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমানের বীরত্বে শত্রুমুক্ত স্বাধীন এই দেশের মুক্ত বাতাসে উত্তরসূরী নাগরিকেরা আজ খুব স্বাভাবিকভাবেই তাদের কবরের উপর বিকেলের হাওয়া খেতে বসে থাকে, দাঁড়িয়ে-মাড়িয়ে ইচ্ছেমত অপদস্থ করে, বাচ্চাদের লাফানোর, খেলার জায়গা এটা।

অথচ এই বুদ্ধিজীবী কবরস্থানের পুরো জায়গাটা জুড়ে আম্মা জাহানারা ইমাম, হুমায়ূন ফরিদী, অধ্যাপক আবদুর রাজ্জাক, দুর্ধষ হেমায়েত বাহিনীর প্রধান মুক্তিযোদ্ধা হেমায়েত উদ্দিন বীর বিক্রমসহ আরো অসংখ্য মুক্তিযোদ্ধা, ভাষা সৈনিক, জ্ঞানী-গুণী বুদ্ধিজীবীরা শুয়ে আছেন। একটাবারের জন্যও কি এই এদের মনে হলো না যে কবরস্থান হাওয়া খাওয়ার পার্ক না? এই নির্লজ্জ ইতর অমানুষগুলো কি মানুষের জন্মের? মায়ের পেট থেকে পয়দা হয়েছে? হলে কীভাবে এমন নোংরামি করে? এই এলাকায় সবসময়ই আনসার এবং নিরাপত্তারক্ষীরা থাকে, তারা কেউ কি এদের এই জঘন্য ইতরামি দেখলো না? কোথায় ছিল গতকাল সবাই?

ধরে নিলাম এই অশিক্ষিত মুর্খচোদা ইতরগুলো পড়ালেখা জানে না, পড়তে পারে না, কিন্তু এই জায়গাটা যে কবরস্থান, এটাও কি এরা জানে না? কোন কিছু না জেনেই অবোধ শিশুর মত এরা এই কাজ করেছে, এটাও আমাদের বিশ্বাস করতে হবে এখন?

রাষ্ট্র কি এই ইতরচোদা বিকলাঙ্গ অপোগন্ডগুলোকে খুঁজে বের করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেবে? অন্তত একটাবারের জন্য এই দেশে মুক্তিযুদ্ধ আর মুক্তিযোদ্ধাদের অপমান আর অপদস্থ করার শাস্তিটা দেখতে চাই আমি! অন্তত একটা উদাহরণ সৃষ্টি করুক রাষ্ট্র! জাস্ট একটা! যেন এই ড্রেনের নোংরা কীটগুলো বোঝে যে এই দেশেও মুক্তিযোদ্ধাদের অপমান করলে শাস্তি হয়! অন্তত একটাবার কি শাস্তি দেবে রাষ্ট্র?

এই মূর্খ ইতর নপুংশক জাতির কোন ক্ষমা নাই.. আমাদের ক্ষমা করা অনেক অনেক বড় পাপ…

(বাংলা নববর্ষ উদযাপনে মিরপুর শহীদ বুদ্ধিজীবী সমাধি প্রাঙ্গনের ছবিগুলো গেরিলা ১৯৭১ পেইজে পাঠিয়েছিলেন নওশের আহমেদ। ফিচার্ডসহ অন্যান্য ছবিগুলো সেই পেইজ থেকে নেওয়া)।

Facebook Comments

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button