মনের অন্দরমহলরিডিং রুম

খারাপ সময়ে সমুদ্র ভ্রমণ আপনাকে উজ্জীবিত করবে যেভাবে!

সমুদ্রের সুবিশাল জলরাশির সামনে দাঁড়ালে আমাদের মন ভালো হয়ে যায়। মন ভালো হয় নদীর জলের সামনে দাঁড়ালে। মন ভালো হয়ে যাবার পক্ষে সায়েন্টিফিক ব্যাখ্যা আছে।আমাদের শরীরে বিলিয়ন বিলিয়ন কোষ।প্রত্যেকটি কোষের ৭৫% পানি। স্বাভাবিকভাবেই আমাদের শরীরের ৭৫% পানি। ৫-৬ লিটার রক্ত থাকে শরীরে। এতটুকু রক্তের ৫৫% পানি (প্লাজমা)। যার শরীরভর্তি পানি, পানির সামনে দাঁড়ালে মন ভালো তো হবেই। পানির সাথে আমাদের প্রচ্ছন্ন কিন্তু প্রকট আকর্ষণ।

মায়ের পেটে থাকা অবস্থায় আমরা অন্ধকারে বেড়ে উঠেছি। কিন্তু নির্দিষ্ট সময় পর সেখান থেকে আমরা বহিষ্কৃত। আমাদের আলোতে চলে আসতে হয়। চাইলেও থাকা যায়না অতিরিক্ত একদিন। না আসলে মা এবং সন্তান দু’জনই জীবন শঙ্কায় পড়ে যেতে পারে। আলোর সাথে আমাদের সম্পর্ক জীবন বাঁচানোর মতোই জটিল।মানুষ স্বভোজী নয়, পরভোজী প্রাণী। মানুষের শরীরের কোষে যদি কোনোভাবে ক্লোরোফিল ঢুকিয়ে দেওয়া যেত তাকে আর কখনো রান্নাবান্না করতে হত না। দিনের একটা সময় মানুষ হাঁটুপানিতে দাঁড়িয়ে থাকত। মাথার উপর থাকত সূর্য। সূর্যের আলোয় পানি আর অক্সিজেন মিলে তৈরি করত কোষের খাবার। তাকে রান্না করতে হত না। কেএফসি কিংবা ম্যাকডোনাল্ডসের মত জায়ান্ট খাবারের কোম্পানিগুলো পৃথিবীতে থাকত না।

ক্লোরোফিল না থাকায় আমরা কী পানি আর আলো থেকে আলাদা হয়ে গেছি? তাদের প্রয়োজন কমে গেছে? না। পানি-আলো না থাকলে গাছ খাবার তৈরি করতে পারত না। গাছ না বাঁচলে আমরা খেতাম কী? কীভাবে বাঁচতাম? পুরো জীবজগৎ অন্ধকারে-পানিহীন জগতে বিলুপ্ত হয়ে যেত। এই হল পানি আর আলোর সাথে আমাদের সম্পর্ক।

যখন খুব খারাপ থাকবেন, নিজেকে টিস্যুপেপারের মত অব্যবহার্য মনে হবে, নিকটজন উপর্যুপরি আপনাকে অবহেলা করবে, ঘরে-বাইরে-সংসারে শ্বাসপ্রশ্বাস বন্ধ হয়ে মনের দিক থেকে মরে যাবেন, তখন অন্ধকার কোনা থেকে মাথা তুলবেন। ঘরের আলোটা জ্বালিয়ে দিবেন। আলোক স্বল্পতা থাকলে আরেকটা আলো জ্বালাবেন। দরজার খিল খুলে বাইরে সূর্যের নিচে আসবেন। ধীরে ধীরে এগিয়ে যাবেন পানির সামনে। সুবিশাল জলরাশির সামনে। দেখবেন, আলো আর জল কখনোই আপনার সাথে বেঈমানি করবে না। মানুষে মানুষে দূরত্ব তৈরি হতে পারে, জল-আলোর বন্ধন কখনোই আলাদা হবে না। ঘুরে আসুন সমুদ্র থেকে। হয়ত কেটে যাবে আপনার খারাপলাগা বোধ!

Facebook Comments

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button