খেলা ও ধুলা

দেশের জন্য তাদের কতশত ব্যাথা যে আড়াল করতে হয়…

রিয়াদের এই ছবি দেখে শঙ্কা জাগারই কথা। তবে, দল ও রিয়াদ নিজে আশাবাদী যে ভারতের বিপক্ষে ম্যাচে খেলবেন। গ্রেড ওয়ান টিয়ার বলা হয়েছে অফিসিয়ালি। আসলে আরেকটু বেশি, ওয়ান অ্যান্ড হাফ হয়তো। ফিজিও দেখে বলেছেন, ৭ থেকে ১০ দিনের বিশ্রাম। যতটা জেনেছি, রিয়াদ নিজে তখনই বলেছেন, ভারতের বিপক্ষে যে করেই হোক, খেলবেনই।

মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, বিশ্বকাপ

সাত দিন বাকি আছে, কাজেই আশাও আছে যথেষ্ট। একদমই না পারলে ভিন্ন কথা, কিন্তু একটুও পারলে রিয়াদ মাঠে নামবেন, এই বিশ্বাস রাখতে পারেন। কালকে খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে ব্যাটিং চালিয়ে গেছেন। এক পর্যায়ে আমারই মনে হচ্ছিল, পরের ম্যাচগুলি ঝুঁকিতে না ফেলে উঠে যাওয়াই ভালো। কিন্তু দলের প্রয়োজন ছিল একটা জুটি। খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়েই চালিয়ে গেছেন, যতটা সম্ভব দ্রুত দৌড়ে এক-দুই, এমনকি তিন রানও নিয়েছেন। খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি জুটি গড়েছেন।

কালকে পায়ে টেপ পেঁচিয়ে খেলেছেন। কাঁধে টেপ পেঁচিয়ে খেলছেন আগে থেকেই। কাঁধের ইনজুরির কারণে বোলিং করতে পারছেন না। যেভাবে মোটা টেপ পেঁচিয়ে ব্যাটিং করে যাচ্ছেন, দেখলে যে কেউ শিউরে উঠবে…

রিয়াদের কাঁধ, মুশফিকের পাঁজর, সাকিবের আঙুল, তামিমের আঙুল, মাশরাফির হাঁটু, কুঁচকি, হ্যামস্ট্রিং (এখনও দুই পায়ে হ্যামস্ট্রিংয়ে প্রচণ্ড টান নিয়ে খেলছেন)… নিবেদন বলতে আমি এসবই বুঝি। লোকে প্রশ্ন তুলে তৃপ্তি পাবে। জিতি বা হারি, সবসময়ই বলির পাঁঠা আমাদের কেউ না কেউ লাগবেই। ওরা উত্তর দিতে চায় না, তৃপ্তি পায় স্রেফ নিজের কাজটা ঠিকঠাক করার চেষ্টা করে…

Facebook Comments

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button