ইনসাইড বাংলাদেশগনমানুষের সাক্ষাৎকার

মিজানুর রহমান: আমাদের সময়ের সুপারহিরো!

ওয়াসার এমডি যে লোকটিকে পাগল বলছেন, সেই মিজানুর রহমান বিগত কয়েক বছর ধরে ফেসবুকের কল্যাণে আমার বন্ধু তালিকায়। কথা হয়নি, কিন্তু মিজানুর রহমানকে আমি দেখে এসেছি একজন প্রতিবাদী কণ্ঠস্বর হিসেবে। ২০১২ সাল থেকে তিনি বিশুদ্ধ পানির দাবীতে প্রতিবাদ করে আসছেন, গণস্বাক্ষর সংগ্রহ করে অভিযোগ দিয়েছেন। লাভ হয়নি।

ওয়াসা ভবনে বিশুদ্ধ পানির দাবীতে স্ত্রী কন্যা নিয়ে মিজানুর রহমান প্রতিবাদ করেন, সুন্দরবন রক্ষার আন্দোলনে তাঁর প্রতিবাদী ভূমিকার জন্য সুইডেনের রি.পাবলিক পত্রিকা তাঁকে জলবায়ু গেরিলা খেতাব দেয়, নিমতলী থেকে চকবাজার অগ্নিকান্ডে নিহত আহত পরিবারের পাশে থেকে তিনি মিছিলে অংশ নেন, নুসরাত হত্যা প্রতিবাদে তিনি রাজপথে সোচ্চার থাকেন, ঢাকার রাস্তাঘাটের অব্যবস্থাপনা, জলাবদ্ধতা, গ্যাস বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধিতে তিনি জোরালো আওয়াজ তুলেন, ছাত্র আন্দোলন, নিরাপদ সড়ক আন্দোলন, পাটকল কিংবা গার্মেন্টস যে কোন শ্রমিক আন্দোলনে আর কাউকে খুঁজে পাওয়া না যাক, মিজানুর রহমানের কণ্ঠস্বর শুনেছি প্রতিবার।

বৈশাখী উৎসবে তিনি পান্তা ইলিশের পরিবর্তে জনগনকে তিনি বলেন, ‘বেকারত্ব, বেতন, ফসলের দাম, খাদ্যে বিষ, হত্যা, ভয়, সুন্দরবন, পারমাণবিক, পরিবেশ ধ্বংসের লেখা/কথা/ছবি নিয়ে আসুন’

কন্যা সন্তানের পিতা অতি সাধারণ মিজানুর রহমান অ্যাভেঞ্জারসের কোন হাই প্রোফাইল ফিকশনাল সুপারহিরো নন, আমাদের নাগরিক ছাপোষা জীবনে যে প্রতিবাদগুলো আমাদের বুক গুমরে মরে কিন্তু ভাষা পায় না, মিজানুর রহমান সেই কথাগুলোই সাহস করে বুক চিতিয়ে বলেন। মিজানুর রহমান, আমাদের সময়ের সুপারহিরো।

Facebook Comments

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button