সিনেমা হলের গলি

নতুন কুঁড়ি থেকে প্রস্ফুটিত ফুল হয়ে সুবাস ছড়ানো ঈশিতা

বয়সের বার্ধক্যে স্মৃতি লোপ পেয়েছে বাবার, খুঁজে বেড়াচ্ছেন নিজ গন্তব্য। এইদিকে বাবাকে খুঁজতে পথে বেরিয়েছেন তাঁর বড় মেয়ে। বাবা-মেয়ের এই মধুর সম্পর্ক নিয়ে গত বছর রেদোয়ান রনির নাটক ‘পাতা ঝরার দিন’ দর্শক মহলে ব্যাপক প্রশংসা থেকে পুরস্কারের জয়জয়কার ছিল। বাবার চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন শ্রদ্ধেয় সৈয়দ হাসান ইমাম, আর মেয়ের চরিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে অনেকদিন বাদে অভিনয় করেছিলেন এক সময়ের জনপ্রিয় অভিনেত্রী।

প্রত্যাবর্তনেই তিনি পেয়েছিলেন সফলতার ছোঁয়া থেকে সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার। অবশ্য পুরস্কার তাঁর কাছে নতুন কিছু নয়। সেই শিশু শিল্পী থেকে পুরস্কার পেয়েছেন। নতুন কুঁড়ি থেকে প্রস্ফুটিত ফুল হয়ে সুবাস ছড়ানো সেই জনপ্রিয়তম অভিনেত্রী হলেন ‘ঈশিতা’।

আশির দশকে নতুন কুঁড়ির মাধ্যমে প্রতিভার বিকাশ। গানে,অভিনয়ে পেয়েছিলেন পুরস্কার। ঠিক সেই সময়েই বিটিভিতে আব্দুল্লাহ আল মামুনের প্রযোজনায় ‘দুজনে’ নাটকে প্রথম অভিনয়ের সুযোগ পান। নাটকে তিনি আফজাল হোসেন ও শান্তা ইসলামের মেয়ের চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন। সেই সময়েই শিশুশিল্পী হিসেবে অভিনয় করে বেশ জনপ্রিয়তা পেয়েছিলেন, যেমন দুখু সহ বেশ কিছু নাটক।

শিশু বয়সের পর নব্বইয়ের মাঝামাঝি সময়ে নায়িকা চরিত্রে অভিনয় করা শুরু করেন। প্রথম নাটক তিথি, এর কিছুদিন পরেই লাক্সের বিজ্ঞাপন করে দারুন আলোচিত হয়েছিলেন। ঈশিতার ক্যারিয়ারে উল্লেখযোগ্য কাজের মধ্যে টেলিফিল্ম, ‘বিহঙ্গ’ সর্বাগ্রে থাকবে। পক্ষাঘাতগ্রস্ত মেয়ের চরিত্রে দারুন অভিনয় করেছিলেন।

ভাই ব্রাদার্স এক্সপ্রেস, পাতা ঝরার দিন, রেদোয়ান রনি, ছবিয়াল, ঈশিতা

এছাড়া জনক, অপরুপা ও লাল বেনারসী এই তিনটি ধারাবাহিক নাটক বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ হয়ে আছে। এছাড়া রোমান্টিক নায়িকা হয়েও ‘ভালোবাসার বৃষ্টি’ নাটকে খল চরিত্রে অভিনয় সহ দূরত্ব, হোম ভিডিও, অন্যরকম ভালোবাসা, বৃষ্টি বদল, বিপাশার জন্য ভালোবাসা ক্যারিয়ারের অন্যতম সেরা নাটক।

ক্যারিয়ারের মধ্যগগনে বিয়ে করে সংসারে থিতু হন, অভিনয়ে অনিয়মিত হয়ে যান। এরপর মাঝে মাঝে ঈদ উৎসবে নাটক করতেন। তখনই চ্যানেল আইতে তিনি যোগদান করেন। কর্মক্ষেত্রে কাজ করার পাশাপাশি বেশকিছু নাটক ও নির্মান করেন। ‘আমাদের গল্প’ এর পর বিরতি দিয়ে ‘পাতা ঝরার দিন’ নাটকে অভিনয় করেন, এটাই তাঁর ক্যারিয়ারের সেরা নাটক। হইচইতে ‘ভালো থেকো ফুল’ শর্টফিল্মে অভিনয় করেছেন।

অভিনয়ের পাশাপাশি গান, নাচেও তিনি প্রতিভাময়ী। তাঁর কন্ঠে ‘ইশটিশনের রেল গাড়িটা’ গানটা দর্শকরা এখনো মনে রেখেছে৷ এলব্যাম ও বেরিয়েছিল, ইত্যাদিতে গান গেয়েছে। আর নাচে পারদর্শী তো আছেনই। সাম্প্রতিক সময়ে কোনো নাটকে অভিনয় না করলেও অতি দ্রুত অভিনয়ে মুগ্ধ হতে পারবো এই আশা রাখি।

Facebook Comments

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button