টেকি দুনিয়ার টুকিটাকি

কী হয়েছিল আজ ইউটিউবের?

সকালে যাদের একটু দেরীতে ঘুম ভাঙে, তাদের অনেকেই ঘুম থেকে উঠেই অদ্ভুত একটা সমস্যার সম্মুখীন হয়েছেন আজ। সকাল সকাল ঘুম ভেঙে মোবাইলটা হাতে নিয়ে ফেসবুক আর ইউটিউবে চক্কর মারাটা অনেকেরই অভ্যাস। সেই অভ্যাসমতোন হয়তো কেউ কেউ ইউটিউবে ঢুকেছিলেন। কিন্ত ঢুকেই চক্ষু চড়ক গাছ তাদের! ইউটিউবে ঢোকা যাচ্ছে, কিন্ত সেখানে কোন ভিডিও দেখা যাচ্ছে না! কোনকিছু আপলোড করা যাচ্ছে না, অনেকে তো লগইন পর্যন্ত করতে পারেননি ইউটিউবে! বাংলাদেশ সময় নাহয় সকালে হয়েছে এটা, অন্য অনেক জায়গায় ইউটিউব ব্যবহারকারীরা এই সমস্যার মুখোমুখি হয়েছেন কাজের সময়ে, একদম প্রাইম টাইমে! সারা বিশ্বেই যে প্রায় ঘন্টাখানেক ধরে ডাউন ছিল ইউটিউব!

বুধবার বাংলাদেশ সময় সকাল আটটার সামান্য আগে থেকে ইউটিউবে এই সমস্যা দেখা দেয়। ব্যবহারকারীরা ইউটিউবে প্রবেশ করতে পারলেও, সমস্যা হচ্ছিল ভিডিও দেখার বেলায়। ভিডিও প্লে হচ্ছিল না, উল্টো ৫০০ ডাটা এরর মেসেজটা দেখাচ্ছিল অনেক জায়গায়। প্রথমদিকে ব্যবহারকারীদের অনেকেই ভেবেছেন, এটা তাদের ডিভাইসের কোন সমস্যা বুঝি। 

কিন্ত সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ধীরে ধীরে অনেকেই শেয়ার করতে থাকেন সমস্যার কথা। তখন বোঝা যায়, এটা ইউটিউবের সার্ভারের কোন সমস্যা, ব্যবহারকারীর মোবাইল বা ল্যাপটপ এক্ষেত্রে দায়ী নয়। আর কোন নির্দিষ্ট এলাকাজুড়ে এই সমস্যা দেখা দেয়নি, এই সমস্যার ভুক্তোভোগী হতে হয়েছে পুরো বিশ্বের সব ইউটিউব ইউজারকেই। 

ইউটিউব, ইউটিউব ডাউন, সার্ভার, ভিডিও শেয়ারিং প্ল্যাটফর্ম

সংবাদ মাধ্যমগুলোর বরাতে জানা গেছে, সারা বিশ্বেই ইউটিউব ডাউন হয়ে গিয়েছিল একই সময়ে। বিশ্বজুড়ে গুগলের এই সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মের ব্যবহারকারীর সংখ্যা কোটি কোটি। পরিষেবা ডাউন হওয়ায় অনেক ব্যবহারকারীই সমস্যায় পড়েছেন। অনেক ব্যবহারকারীই অনলাইনে টিভি দেখা, গান শোনা এবং অন্যান্য অনেক ব্যবসায়িক কাজের জন্য ইউটিউবের ওপর নির্ভরশীল। সকাল প্রায় সাড়ে ছয়টার সময় ভারতে ইউটিউব ডাউন হওয়ার খবর জানা যায়। তবে বাংলাদেশের ব্যবহারকারীদের তরফ থেকে অভিযোগ আসতে শুরু করে সকাল আটটা নাগাদ।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলোতে ইউটিউবের এই সমস্যাটা চাউর হতে সময় লাগেনি খুব বেশি। ফেসবুক আর টুইটারে #youtubedown হ্যাশট্যাগ দিয়ে নিজেদের সমস্যার কথা জানান লক্ষ লক্ষ ইউজার। আজকের দিনের সবচেয়ে বড় টুইটার ট্রেন্ড ছিল ইউটিউবের এই ডাউন হয়ে যাওয়া। ব্যাপারটা ইউটিউব কর্তৃপক্ষের নজরে পড়তেও সময় লাগেনি খুব বেশি, ফেসবুক আর টুইটারের মাধ্যমে তারা ব্যবহারকারীদের আশ্বস্ত করেছে যে এই বিষয়ে দ্রুত পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে। ইউটিউবের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়, 

“খুব শীঘ্রই সমস্যার সমাধান করা হবে। টুইটবার্তায় বলা হয়- ইউটিউব, ইউটিউব টিভি এবং ইউটিউব মিউজিক ব্যবহার করার ক্ষেত্রে যে সমস্যাটি হয়েছে, সেটার ব্যাপারে জানানোর জন্য সবাইকে ধন্যবাদ। সমস্যার সমাধানের জন্য কাজ চলছে এবং শীঘ্রই এ ব্যাপারে জানানো হবে। সাময়িক এই অসুবিধার জন্য আমরা ক্ষমাপ্রার্থী।”

বাংলাদেশ সময় সকাল পৌনে নয়টা নাগাদ অনেকেই ইউটিউবে ভিডিও দেখতে পাচ্ছিলেন বলে ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে জানিয়েছেন। সকাল নয়টার মধ্যে মোটামুটি সবাই কোন রকমের ঝামেলা ছাড়াই ইউটিউব ব্যবহার করতে পেরেছেন। তবে এই ইস্যুটা পুরো বিশ্বে একসঙ্গে সমাধান করা হয়নি। জাপান এবং আমেরিকার কিছু জায়গায় অনেকক্ষণ ধরেই সমস্যার মুখোমুখি হতে হয়েছে ইউটিউব ব্যবহারকারীদের। তবে কয়েক ঘন্টা পরে সেটার সমাধানও করেছে ইউটিউব কর্তৃপক্ষ। এখন বিশ্বজুড়েই নির্ঝঞ্ঝাটভাবে ইউটিউব ব্যবহার করতে পারছেন সবাই।

সমস্যার সমাধান করার পরে ইউটিউব কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে এক টুইটে সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলা হয়, সমস্যাটির সমাধান করা হয়েছে। আর কোন সমস্যার সম্মুখীন হলে তাদের জানানোর অনুরোধও করা হয়েছে। নতুন করে আর কোন সমস্যার উদ্ভব না হলেও, বিশ্বের সর্ববৃহৎ এই ভিডিও শেয়ারিং প্ল্যাটফর্মের এমন হুট করে ডাউন হয়ে যাওয়া নিয়ে ঋণাত্মক প্রতিক্রিয়াই জানিয়েছেন ইউটিউব ব্যবহারকারীরা।

Comments

Tags

Related Articles