পাশ্চাত্যের সমাজ সম্পর্কে আমাদের মনে যে ছবি গাঁথা, তাতে সে সমাজের নারী-পুরুষের সম্পর্কের ভঙ্গুর দিকটাই বেশি ফুটে উঠে। কিন্তু মাঝে মাঝে এমন কিছু যুগলের প্রেমকাহিনীর খোঁজ পাওয়া যায় যা আমাদের ধারণার বাইরে।

এই যেমন গত বছরের শেষদিকে ৯০ বছর বয়সী ফেরিস রোমেয়ার এবং ৮৯ বছর বয়সী মার্গারেট ঘটা করে পালন করলেন তাদের ৭০তম বিবাহ বার্ষিকী! তারা প্রেমে পড়েন সেই স্কুলে থাকতে, যুবক বয়সে বিয়ে করেন, একসাথে বুড়ো হন। এই পর্যন্ত খুব একটা অসাধারণ কোন গল্প নেই। কিন্তু তারা অসাধারণ হয়ে উঠেন যখন সিদ্ধান্ত নেন ৭০ বছর আগের এক অপূর্ণ ইচ্ছা পূরণ করার উদ্যোগ নিলেন।

এখনকার সব বিয়েতে তো ওয়েডিং ফটোগ্রাফির চল। এটা ছাড়া বিয়েই তো অসম্পূর্ণ মনে হয়! কিন্তু এই সাধারণ সুযোগটিই পাননি রোমেয়ার দম্পতি। ১৯৪৬ সালে যখন তারা বিয়ে করেন, তখন না ছিল তাদের শহরে কোন প্রফেশনাল ফটোগ্রাফার, না ছিল তাদের বন্ধু বা আত্মীয় কারো ক্যামেরা।

তাই ৭০ বছর বাদে প্রফেশনাল ফটোগ্রাফার লারা কার্টার তাদের প্রস্তাব দেন, নতুন করে ওয়েডিং ফটোগ্রাফি করার, তাদের বিবাহবার্ষিকীতে। ফলাফল নিজের চোখেই দেখুন!

তাদের ছবিগুলোর মাঝে অদ্ভুত এক মায়া আছে, সারল্য আছে, আছে ভালোবাসার বহিঃপ্রকাশ। সত্যিকারের ভালোবাসা কখনোই সময়ের সাথে পুরোনো হয় না। এই দম্পতি আজও তাদের নিজেদের ৬৫ বছর আগে তৈরি করা বাড়িতে বসবাস করেন। তারা হয়তো খুব একটা ধনী নন, কিন্তু সন্তান ও সুখী গৃহকোণ নিয়ে এক সমৃদ্ধ জীবনযাপনের সৌভাগ্য তাদের হয়েছে। সেই সৌভাগ্যই বা কজনের হয়!

(তথ্যসূত্র- ব্রাইটসাইড)

Do you like this post?
  • Fascinated
  • Happy
  • Sad
  • Angry
  • Bored
  • Afraid

আপনার গুরুত্বপূর্ণ মতামত দিন-