মাশরাফি নামের মহীরূহ!

২০১৫ সালের নভেম্বরে ইএসপিএন ক্রিকইনফোর ম্যাগাজিন ক্রিকেট মান্থলি-তে মাশরাফিকে নিয়ে এক অনবদ্য লেখা লিখেন ক্রিকইনফো-এর বাংলাদেশ প্রতিনিধি মোহাম্মদ ইশাম, ‘The torchbearer‘ শিরোনামে। এগিয়ে চলোর পাঠকদের জন্য লেখকের অনুমতিক্রমে সেটি ভাবানুবাদ করেছি আমরা। পাঠকদের নিমন্ত্রণ মাশরাফি নামক মহীরূহের ইন্দ্রজালে। * গত বছর মে মাসের মাঝামাঝি, ভ্যাপসা গরমের এক দুপুরে লম্বা একটা ট্রেনিং সেশন শেষে মিরপুর শেরে বাংলার ড্রেসিংরুমের সামনের জায়গাটায় খালি গায়ে দাঁড়িয়ে মাশরাফি বিন মুর্তজা নামের লোকটা। মুখভর্তি সেই পরিচিত উদ্ভাসিত হাসি; চারপাশটা তাতে যেন ঝলমল করছে।…

"মাশরাফি নামের মহীরূহ!"

মাশরাফিকে নিয়ে একটু লিখি?

আমরা শান্ত যুগের দর্শক! হাসিবুল হোসেন শান্ত। চৌধুরী জাফর উল্লাহ শরাফত বাংলাদেশের ইনিংসের শুরুতেই ভরাট গলায় বলতেন, ‘হাসিবুল হোসেন শান্ত। বলের ওপরে যার অসাধারণ মনোসংযোগ! তিনি তার বোলিং মার্কে ফিরে যাচ্ছেন, এই মাত্র ঘুরলেন, দৌড় শুরু করেছেন। আম্পায়ারকে অতিক্রম করে বল করলেন…’ যেকোনো বিবেচনায় বাংলাদেশ ক্রিকেট ইতিহাসের এক অসাধারণ পেসারের নাম শান্ত! কিন্তু সেকালে আমাদের স্কোরবোর্ডে রান থাকে ১৫০ থেকে ১৭০ কিংবা তার চেয়েও কম। তারওপর পেসারদের বলের গতি ঘণ্টায় ১১৮-১২৫ কিমি। মজার ব্যাপার হচ্ছে,…

"মাশরাফিকে নিয়ে একটু লিখি?"

সতীর্থদের এমন ভালোবাসাই তো মাশরাফির প্রাপ্য!

টি২০ বিশ্বকাপের কোন আলো ঝলমলে উত্তেজনায় ঠাসা ফাইনাল ম্যাচ ছিল এটি? কিংবা চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনাল?  নাহ! স্রেফ একটি টি-২০ সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচ, যেটি বাংলাদেশ জিতলে সিরিজ ড্র হবে কেবল। পেশাদার ক্রিকেটের যুগে এরকম অসংখ্য ম্যাচ হরদমই হচ্ছে! বাংলাদেশও এরকম ম্যাচ হরদমই খেলছে, হারছে! শেষ ম্যাচটা জিতলে হয়তো সিরিজে সমতা আনার আনন্দটা পাওয়া যাবে, এইতো!  কিন্তু এরপরেও আজ জাতীয় দলের ১১ জন খেলোয়াড় স্রেফ একটা টি২০-এর জন্য মাঠে তাদের জানপ্রান ঢেলে দিল কেন? যেন এটাই তাদের জীবনের…

"সতীর্থদের এমন ভালোবাসাই তো মাশরাফির প্রাপ্য!"

অষ্টম অস্ত্রোপচারের টেবিলে | কবিতা

অপারেটিং লাইটের ঝাঁঝাঁল গল্প মুহূর্তে নিয়ে যায় ফ্লাডলাইটের ব্যালকনিতে, ডায়াথার্মি ছয়বার শব্দ করেই চুপ। ছুরি, কাঁচি আর গজের বান্ডেল হাতে, মুখোশের ওপারে কিছু সংরক্ষিত সদস্য। দৃশ্যপট কিছুটা ভিন্ন, কেননা পায়ের উপর ঝুকে নেই অস্থির কনসালটেন্ট আর বৈদেশীয় প্রফেসর। নিষ্পন্দ দৃষ্টিতে এবার মুখোমুখি কেবল দক্ষ এক স্বার্থান্বেষী দল। অষ্টম অস্ত্রোপচার এর টেবিলে- আমি রোগী নই, রোগ। আর তাই সমালোচনার এনেস্থিসিয়ায় হৃৎপিন্ড ফেঁড়ে, যেকোনো মুহূর্তে অপসারিত হবে এবার ক্যারিয়ারটাই। * অষ্টম অস্ত্রোপচারের টেবিলে উৎসর্গ: মাশরাফি বিন মর্তুজা।

"অষ্টম অস্ত্রোপচারের টেবিলে | কবিতা"

একজন পাপন-হাথুরু কিংবা ফ্রাঙ্কেনস্টাইনের গল্প

শুরুটা ঠিক কোথা থেকে করব, ঠিক বুঝে উঠতে পারছি না। একজন ক্রিকেটার টি-২০ ফরম্যাটে খেলা থেকে অবসর নিয়েছেন, এই নিয়ে এত হাউকাউয়ের কী আছে! তার উপর সেই ক্রিকেটারের বয়স যদি মধ্যত্রিশে থাকে এবং তাঁর ভেঙে গুঁড়ো গুঁড়ো হয়ে যাওয়া হাঁটুর মধ্যে যদি থাকে রাজ্যের লোহা-লক্করের বসবাস, তাহলে তো আর কিছু বলার প্রশ্নই আসে না! মাঠে নামার আগে যে ক্রিকেটারের আধঘণ্টার বেশি সময় নিয়ে হাঁটুতে ব্যান্ডেজ বাঁধতে হয়, তারপর নিজ হাতে সিরিঞ্জ দিয়ে টেনে বের করতে হয়…

"একজন পাপন-হাথুরু কিংবা ফ্রাঙ্কেনস্টাইনের গল্প"

বিসিবির অদ্ভুত নীরবতার রহস্য ফাঁস (ভিডিওবিহীন)

গতকাল দুপুর থেকেই গুঞ্জন, এরপর সন্ধ্যা গড়াতে না গড়াতেই এলো ঘোষণা, টি২০ ক্রিকেটকে বিদায় বলছেন মাশরাফি! মূলত গত বছর দুয়েক ধরেই বিভিন্ন সময় আলোচনায় এসেছে মাশরাফির অবসর ভাবনা, বিশেষ করে টি২০ ক্রিকেট থেকে(টেস্ট ক্রিকেটকে আনুষ্ঠানিকভাবে বিদায় না বললেও, অনেকদিন থেকেই দূরে আছেন)। তিনি নিজে কিছু না বললেও বিভিন্ন সময় তার হয়ে অবসরের ইঙ্গিত মিডিয়ায় দিয়ে আসছেন তার শুভাকাংক্ষী আপনজনেরা। অবশেষে সকল জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে শ্রীলঙ্কা সিরিজকেই নিজের শেষ আন্তর্জাতিক টি২০ সিরিজ হিসেবে ঘোষণা করে দিয়েছেন।…

"বিসিবির অদ্ভুত নীরবতার রহস্য ফাঁস (ভিডিওবিহীন)"

এতটা অকৃতজ্ঞ বোধহয় আমরা না হলেও পারতাম!

মাশরাফি বিন মুর্তজা নামের মানুষটার জীবনে সবচেয়ে কষ্টের দিন ছিলো ২০১১ সালের ১৯শে জানুয়ারী। আজকের এপ্রিলের চার তারিখ কি ছাপিয়ে যাবে বছর ছয়েক আগের সেই দিনটাকে? মাশরাফি বিন মর্তুজা আজ অবসর নিয়েছেন টি-২০ ক্রিকেট থেকে। নাকি নিতে বাধ্য করা হয়েছে? খালি চোখে দেখলে ঘটনাক্রম অনেকটা এমনই- শুরুটা দুপুর থেকেই হয়েছিলো। ড্রেসিংরুমে সতীর্থদের মাশরাফি জানিয়ে দিয়েছিলেন নিজের সিদ্ধান্ত, তারপর দলের সাথে থাকা কর্মকর্তাদের। সেখান থেকে কলম্বোয় অবস্থানরত বাংলাদেশী সাংবাদিকদের কানে এই খবর পৌঁছুতে বেশী সময় নেয়…

"এতটা অকৃতজ্ঞ বোধহয় আমরা না হলেও পারতাম!"

মুখ ও মুখোশের মাশরাফিভক্তরা…

১০ ওভার, ৬৫ রান, পাশে তিনটা উইকেট। শুধু যদি আজ নামের পাশে ওই তিনটা উইকেট না থাকতো, ‘ক্যাপ্টেন কোটামারানী’রা সদলবলে জেগে উঠতো। মাশরাফি ভালো, মাশরাফি অসাধারণ, মাশরাফি বস, মাশরাফি গ্রেট – এই যে লোকগুলাকে চারপাশে দেখি, অনেকের মুখেই আসলে একটা মুখোশ আঁটা। ৩০ মার্চ, ২০১৪ – পাকিস্তানের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ম্যাচে মাশরাফি চার ওভারে ৬৩ রান দিয়েছিলেন। আমার নিজের চোখে দেখা, নিজের কানে শোনা, এই মাশরাফিকে, মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামের ‘ডাইহার্ড’ দর্শকগণ সেদিন অকথ্য ভাষায়…

"মুখ ও মুখোশের মাশরাফিভক্তরা…"

স্কুলবয় ক্রিকেট, ক্লাস ক্যাপ্টেন ও বাস ড্রাইভারের গল্প!

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ম্যাচের কোন বিশেষ মুহূর্তে কোন ক্রিকেটারকে একেবারে মৌলিক কিংবা হাস্যকর কোন ভুল করতে দেখলে কমেন্টেটররা বলে ওঠেন, ‘স্কুলবয় মিসটেক!’ এর অর্থ হচ্ছে স্কুলে পড়া কোন ছাত্রের কাছ থেকে এমন ভুল মেনে নেওয়া যায়, আন্তর্জাতিক পর্যায়ে তা অকল্পনীয়।  নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দ্বিতীয় ওয়ানডেতে বাংলাদেশ দলের ‘ব্যাটিং’ দেখলে আপনাকে দ্বিধায় পড়ে যেতে হবে। কেউ যদি দাবি করে একদল স্কুলপড়ুয়া ছেলেকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলতে নামিয়ে দেওয়া হয়েছে, তবে তাকে খুব একটা দোষ হয়তো দেওয়া যাবে না! শুরুটা…

"স্কুলবয় ক্রিকেট, ক্লাস ক্যাপ্টেন ও বাস ড্রাইভারের গল্প!"

এই মাশরাফি ‘ক্যাপ্টেন কোটায়’ খেলে না…

বয়স ৩৩ হয়েছে কিছু দিন আগেই। ক্রিকেট খেলুড়ে জাতীয় দলগুলোয় তাঁর বয়সী “পেসার” এই মুহূর্তে আছেই হাতেগোনা কয়েকজন। বয়সের চেয়ে বড় ফ্যাক্টর আরেকটি আছে। ইনজুরি! সেখানেও তিনি অন্য সবার চেয়ে “উপরে”! সাতবার অস্ত্রোপচার হয়েছে দুই হাঁটুতে। বিশ্বের তাবড় তাবড় পেসাররা এর অর্ধেক হলেই হয়তো হাল ছেড়ে দিতেন। সেখানে তিনি খেলে যাচ্ছেন ১৫ বছর ধরে। ওয়ানডেতে দেশকে নেতৃত্বও দিচ্ছেন। এমনকি এই বোলারটি এই মুহূর্তে ওয়ানডে বোলার র‍্যাঙ্কিংয়ে ৯ নম্বরে! জি, ইংল্যান্ড সিরিজের পর সদ্যপ্রকাশিত আইসিসি র‍্যাঙ্কিংয়ে মাশরাফি বিন মর্তুজা উঠে…

"এই মাশরাফি ‘ক্যাপ্টেন কোটায়’ খেলে না…"

মাশরাফির দিনে কবে হাসেনি বাংলাদেশ?

গত কয়েক ম্যাচে বল হাতে অসাধারণ থাকলেও ব্যাট হাতে কিছুটা বিবর্ণই ছিলেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। তার ব্যাট থেকে ইনিংসের শেষ দিকের আক্রমণাত্মক ক্যামিওগুলো খুব মিস করছিলেন বাংলাদেশের ভক্তরা। যতই তামিম-কায়েসরা ভালো সূচনা এনে দিন, সাব্বির-মাহমুদউল্লাহ্‌রা ইনিংস মেরামতের কাজ করুন, মাশরাফির স্লগ ওভারে ফিনিশিং ছাড়া আমাদের লেজের ব্যাটিং অনেকখানিই দুর্বল, এটাই ছিল গত চার ম্যাচের গল্প! তবে দল যখন বিপদে, ৪২ ওভার শেষে দল যখন বিপদের চুড়ান্ত সীমায়, স্কোরবোর্নে ১৭০ রান তুলতেই ৭ উইকেট…

"মাশরাফির দিনে কবে হাসেনি বাংলাদেশ?"

শুভ জন্মদিন গুরু, শুভ জন্মদিন ক্রিকপ্লাটুন!

ইয়ে সালে কালা মছুয়া বাঙ্গাল কেয়া ক্রিকেট খেলতা, ও তো সির্ফ মাছলি খাতা অর মাছলি কি সুরুয়া উসকো হাত সে পারতা রাহা তা… হাসতে হাসতে পাঞ্জাবীদের ছুড়ে দেওয়া এই টিটকারি সহ্য করতে পারতেন না লাডু ভাই, মাথায় আগুন ধরে যেত… পেশায় সাংবাদিক মানুষটা ছিলেন খেলার পাগল, ফুটবল খেলতে প্রচণ্ড ভালোবাসতেন। ক্রিকেটেও কম যেতেন না। দৈনিক আজাদে সহসম্পাদক হিসেবে সাংবাদিকতা শুরু করলেও এক পর্যায়ে ক্রিকেট-ফুটবলে এমনই অন্তঃপ্রান গেলেন যে, ক্রীড়া সাংবাদিক হিসেবেই তাকে সবাই চিনতে শুরু…

"শুভ জন্মদিন গুরু, শুভ জন্মদিন ক্রিকপ্লাটুন!"