সতীর্থদের এমন ভালোবাসাই তো মাশরাফির প্রাপ্য!

টি২০ বিশ্বকাপের কোন আলো ঝলমলে উত্তেজনায় ঠাসা ফাইনাল ম্যাচ ছিল এটি? কিংবা চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনাল?  নাহ! স্রেফ একটি টি-২০ সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচ, যেটি বাংলাদেশ জিতলে সিরিজ ড্র হবে কেবল। পেশাদার ক্রিকেটের যুগে এরকম অসংখ্য ম্যাচ হরদমই হচ্ছে! বাংলাদেশও এরকম ম্যাচ হরদমই খেলছে, হারছে! শেষ ম্যাচটা জিতলে হয়তো সিরিজে সমতা আনার আনন্দটা পাওয়া যাবে, এইতো!  কিন্তু এরপরেও আজ জাতীয় দলের ১১ জন খেলোয়াড় স্রেফ একটা টি২০-এর জন্য মাঠে তাদের জানপ্রান ঢেলে দিল কেন? যেন এটাই তাদের জীবনের…

"সতীর্থদের এমন ভালোবাসাই তো মাশরাফির প্রাপ্য!"

নিজে জিততে হলে কি অন্যকে হারাতেই হবে?

– এটা কম্পিটিশনের যুগ বুঝলা? একটু কম্পিটেটিভ না হলে টিকতে পারবা না। – জ্বি বুঝলাম। তা কম্পেটিটিভ হতে হলে কি করতে হবে? – অন্যরা কি করছে না করছে, তার খোঁজ করতে হবে। তাদের শক্তির জায়গা, দুর্বলতার জায়গাগুলো খুঁজে খুঁজে বের করতে হবে। না হলে টিকতে পারবে না। – বুঝলাম না। কম্পিটিশনে জিততে হলে অন্যের দুর্বলতা কেন জানতা হবে? – জানতে হবে না? তোমারতো তার আগে যেতে হবে। তাকে হারাতে হবে। জিততে হবে। তার দুর্বলতা না…

"নিজে জিততে হলে কি অন্যকে হারাতেই হবে?"