বৎসরের মাঝামাঝি, উঠিল বাজনা বাজি! এ বাজনা ফুটবলের বিশ্বআসরের বাজনা। আর মাত্র কয়েকটা ঘন্টা বাকী! মঞ্চ প্রস্তত, প্রস্তত খেলোয়াড়েরা, প্রস্তুতি সম্পন্ন দর্শকদেরও। গ্রেটেস্ট শো অন দ্য আর্থকে বরণ করে নিতে সব রকমের প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে রাশিয়াও। এখন কেবল সময় সমাগত হবার অপেক্ষা।

বাংলাদেশ সময় রাত নয়টায় মাঠে গড়াবে প্রথম ম্যাচ, সেখানে মুখোমুখি হবে স্বাগতিক রাশিয়া আর এশিয়ান প্রতিনিধি সৌদি আরব। তবে তার আগে বাড়তি আকর্ষণ যোগ করতে যাচ্ছে বিশ্বকাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। দজ্ঞযজ্ঞের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে ভালোভাবেই। তন্বী তরুণীর মতোই মোহনীয় রূপে সেজেছে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের ভেন্যু মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়াম। আলোয় ঝলমল করছে পুরো মস্কো শহরটা, পুরো রাশিয়াও কি ভেসে যাচ্ছে না সেই আলোর বন্যায়? বিশ্বফুটবলের সবচেয়ে বড় আসরের স্বাগতিক হবার আনন্দটা তো সামান্য কিছু নয়!

রাশিয়া বিশ্বকাপ, বিশ্বকাপ ফুটবল ২০১৮, বিশ্বকাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান

২০০২ সালে জাপান-কোরিয়া বিশ্বকাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানটা প্রশংসা কুড়িয়েছিল। মন মাতিয়েছিল ২০১০ এর দক্ষিণ আফ্রিকা, কিংবা ২০১৪’র ব্রাজিলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানও। রাশিয়া কেমন করবে? প্রশ্নটা তাই উঠে যাচ্ছেই। তা কি কি থাকছে রাশিয়ার এই উদ্বোধনী আয়োজনে?

বিশাল দেশ রাশিয়া, বিশ্বের মধ্যে সর্ববৃহৎ। লোকসংখ্যা সেই তুলনায় কম, তবে বহু ভাষাভাষী আর জাতিস্বত্তার মানুষের বসবাস এখানে। তাদের সংস্কৃতি আর ঐতিহ্য তুলে ধরা হবে এই অনুষ্ঠানে। প্রায় পাঁচশো জন জিমন্যাস্ট আর ড্যান্সারকে প্রশিক্ষণ দিয়ে প্রস্তুত করা হয়েছে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের জন্যে।

রাশিয়া বিশ্বকাপ, বিশ্বকাপ ফুটবল ২০১৮, বিশ্বকাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান

উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শুরু হবে বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা সাড়ে সাতটা থেকে। প্রথম একঘন্টা সময় বরাদ্দ থাকবে রাশান শিল্পীদের পারফরম্যান্সের জন্যে। আর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মূল আকর্ষণ শুরু হবে বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে আটটা থেকে। রাশিয়া বিশ্বকাপে গান গাওয়ার জন্যে ইংল্যান্ড থেকে উড়ে আসছেন পপ গায়ক রবি উইলিয়ামস। তার সঙ্গে মঞ্চ মাতাবেন রাশান শিল্পী আইদা গারিফুলিনা। তাদের গানের সঙ্গেও স্টেডিয়ামে নেচে নেচে পারফর্ম করবেন প্রশিক্ষিত নৃত্যশিল্পীরা। এছাড়াও গাইবেন অপেরা আইকন প্লাসিদো ডমিঙ্গো। থাকবেন পেরুর জনপ্রিয় শিল্পী জুয়ান দিয়েগো ফ্লোরেজও। মূল আকর্ষণের অংশটির স্থায়ীত্ব আধঘন্টারও কম হবে বলে জানা গেছে।

রাশিয়া বিশ্বকাপ, বিশ্বকাপ ফুটবল ২০১৮, বিশ্বকাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান

এ তো গেল শিল্পীদের কথা। ফুটবলের এই বিশ্ব আসরে ফুটবলারেরা থাকবেন না, তা কি করে হয়? ব্রাজিলিয়ান কিংবদন্তী স্ট্রাইকার রোনালদো দ্য ফেনোমেনোন উপস্থিত হয়েছেন রাশিয়ায়, মঞ্চে থাকবে তার সরব উপস্থিতি। নিজের ইনস্ট্যাগ্রাম একাউন্টে ছবি আপলোড দিয়ে সাবেক স্প্যাশিন অধিনায়ক ইকার ক্যাসিয়াস জানিয়ে দিয়েছেন, তিনিও আছেন রাশিয়াতে!

রাশিয়া বিশ্বকাপ, বিশ্বকাপ ফুটবল ২০১৮, বিশ্বকাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান

উইল স্মিথ ও নিকি জ্যামের গাওয়া টুর্নামেন্টের অফিশিয়াল থিম সং ‘লিভ ইট আপ’ দিয়ে শুরু হবে অনুষ্ঠান। আকাশ আলোকিত করে ফুটবে একের পর এক আতশবাজি। গানের সঙ্গে নাচ তো থাকছেই। অনুষ্ঠানের শেষ পর্যায়ে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখবেন ফিফা প্রেসিডেন্ট জিওভান্নি ইনফান্তিনো, তিনিই ঘোষণা করবেন ২০১৮ ফুটবল বিশ্বকাপের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের। যারা স্টেডিয়ামে হাজির হবার সুযোগ পাচ্ছেন না তাদের জন্যে বিকল্প ব্যবস্তা হিসেবে মস্কো স্কয়ারে আয়োজন করা হয়েছে কনসার্টের। সেখানে প্রায় দুই লক্ষ মানুষের সমাগম হবে বলে ধারণা করছে মস্কো পুলিশ।

রাশিয়া বিশ্বকাপ, বিশ্বকাপ ফুটবল ২০১৮, বিশ্বকাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান

মাঠের লড়াই শুরু হবে আজ থেকেই, প্রতিদ্বন্দ্বীতার ঝাঁঝে মুখরিত হয়ে উঠবে রাশিয়ার এগারোটি ভেন্যু। তবে তার আগে এই লড়াইটাকে খানিকটা উৎসবের বাতাবরণে মুড়িয়ে দিতেই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের এত আয়োজন। লুঝনিকি স্টেডিয়ামে প্রায় আশি হাজার দর্শক এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানটি সরাসরি চর্মচক্ষে উপভোগ করবেন আজ রাতে। এছাড়াও টিভি পর্দার বদৌলতে সারা বিশ্বের দর্শকেরাই দেখতে পাবেন এই অনুষ্ঠানটা। ভারত-পাকিস্তান-বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কায় বিশ্বকাপ সম্প্রচার করবে সনি এন্টারটেনমেন্ট। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানও দেখা যাবে সনি চ্যানেলেই। এছাড়াও বাংলাদেশের মাছরাঙা টিভি এবং নাগরিক টিভিতে দেখা যাবে এই অনুষ্ঠানটা। সরাসরি সম্প্রচার শুরু হবে বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা সাতটা থেকে।

তথ্যসূত্র- দ্য গার্ডিয়ান, বিবিসি, ইন্ডিপেন্ডেন্ট ডট ইউকে।

Comments
Spread the love