খেলা ও ধুলা

এ বছর যিনি ছাপিয়ে গেছেন মেসি-রোনালদোকেও!

ইংলিশ কোনো ফুটবলার নিয়ে মিডিয়ার মাতামাতিতে আগে তেমন একটা পাত্তা দেয়ার কিছু ছিল না। কারণ ব্রিটিশ মিডিয়াটাই এমন, তাদের চোখে একটু ভালো মনে হলেই সেই ফুটবলারকে তুলনা করা হয় মেসি কিংবা রোনালদোর সাথে। সবার ধারণা ছিল তিনিও সে দলেরই একজন। ওয়ান সিজন ওয়ান্ডার তো আর কম দেখেনি ব্রিটিশ ফুটবল। কিন্তু এখন পর্যন্ত তাকে নিয়ে করা উচ্চবাচ্য যে খুব একটা মিথ্যা নয় সেটি দেখিয়ে চলেছেন প্রতিনিয়ত।

জ্বি, বলছি হ্যারি কেনের কথা। কেন এমন একটা কাজ করেছেন যেটা গত ১০ বছরে ফুটবল বিশ্বে অসম্ভব বলেই বিবেচিত হয়ে আসছে। মেসি-রোনালদোকে পেছনে ফেলে ২০১৭ সালে সর্বোচ্চ গোল করার রেকর্ডটা নিজের নামে লিখিয়েছেন কেইন। বছর শেষ করেছেন ৫৬ গোল নিয়ে। যেখানে মেসির গোল ৫৪টি, রোনালদোর ৫৩টি। ব্যাপারটা আরো অবিশ্বাস্য ঠেকবে যখন মাথায় আসবে লুইস সুয়ারেজ, রবার্ট লেভানডস্কি, সার্জিও আগুয়েরোর মতো বিশ্বসেরা স্ট্রাইকাররা যেখানে মেসি-রোনালদোর সাথে পাল্লা দিয়ে পারেননি সেখানে কেন পেরেছেন।

কেনের আগে ডেভিড ভিয়াই পেরেছিলেন এই কাজটা করতে। অবশ্য কেন আরেকটা রেকর্ডও করেছেন। সেটি হল প্রিমিয়ার লিগ যুগ শুরু হবার পর এক বছরে সর্বোচ্চ ৩৯ গোল। ৩৬ গোল নিয়ে যেটি ছিল অ্যালান শিয়ারারের। ইংলিশ ফুটবলের সবচেয়ে বড় বিজ্ঞাপন এখন হ্যারি কেন। টটেনহ্যামের হয়ে যে গতিতে ছুটছেন তাতে নিজের ক্যারিয়ারের স্ট্যাটস সমৃদ্ধ তো হচ্ছেই, সবার কাছ থেকে প্রশংসাও পাচ্ছেন অঢেল।

কেইনের উত্থান ২০১৪-১৫ মৌসুম থেকে। সে মৌসুমে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ৫১ ম্যাচে ৩১ গোল করে জানান দিয়েছিলেন নিজের প্রতিভা। কিন্তু ওই যে, ইংলিশ বলেই ওয়ান সিজন ওয়ান্ডার হয়ে হারিয়ে যাবার ভয়টা ছিলই। সেটিও দূর করেছেন দারুণ পারফরম্যান্সে। ২০১৫-১৬ মৌসুমে ৫০ ম্যাচে ২৮ গোল, ২০১৬-২০১৭ মৌসুমে করেছেন ৩৮ ম্যাচে ৩৫ গোল। আর এবারের চলতি মৌসুমে ২৪ ম্যাচে ২৪ গোল। যে গতিতে ছুটছেন তাতে আরো অনেকদিন ডিফেন্ডারদের রাতের ঘুম হারাম করে দিবেন সেটি নিশ্চিত করেই বলা যায়।

হ্যাঁ, হ্যারি কেন ব্রিটিশ হওয়া স্বত্ত্বেও।

Comments
Tags
Show More

Related Articles

Close