ইনসাইড বাংলাদেশহেঁশেলের খোঁজ-খবরাদি

সি-ফুড না খেলে কক্সবাজার ভ্রমণটাই বৃথা!

কক্সবাজারে যায়নি এমন মানুষ খুব কমই আছে। সমুদ্র দেখার জন্য জীবনে একবার হলেও কক্সবাজার ভ্রমণ প্রয়োজন। কিন্তু শুধু যে সমুদ্রের জন্যই কক্সবাজার বিখ্যাত তা কিন্তু নয়। বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় পর্যটন স্থান কক্সবাজার একই সাথে ভ্রমণ ও খাবারের জন্য পরিচিত। ভ্রমণ নিয়ে কথা হবে কিন্তু খাবার নিয়ে হবে না তা কি হয়? পেটের জন্যই তো এই জীবন আমাদের! আর জায়গাটা যদি হয় সমুদ্রের কাছে তাহলে তো একদম কথাই নেই।

কক্সবাজার সহ দেশের যেকোনো পর্যটন স্থান এখন খাবারের দোকানের ছড়াছড়ি। বিশ্বের শ্রেষ্ঠ সমুদ্র সৈকতের শহর কক্সবাজারে রাস্তায় রাস্তায় পাওয়া যায় সামুদ্রিক খাবারের দোকান। সমুদ্রের বিভিন্ন মাছের আইটেম আকর্ষিত করে ভ্রমণরত মানুষদের। কক্সবাজার যাবেন কিন্তু লইট্টা ফ্রাই খাবেন না অসম্ভব ব্যাপার। যেকোনো রেস্টুরেন্টে গেলেই পাওয়া যাবে এটি।

কিন্তু আপনি যদি লাইভ সি ফিশ ফ্রাই খেতে চান তাহলে লাবনী বিচের আশেপাশে অবস্থানরত ছোট ছোট দোকান গুলোই বেশী ভালো। সেখানে আপনার পছন্দ অনুযায়ী যেকোনো মাছ আপনার চোখের সামনেই ভেজে দিবে। তবে দর-কষাকষিতে প্রখর হতে হবে। একবার যদি তারা বুঝে যায় আপনি নতুন এসেছেন। এই সবে কোনো ধারনা নেই। তাহলে নিশ্চিত থাকুন আপনার পকেট থেকে চলে যাবে বেশ কিছু টাকা।

সি ফুড, কক্সবাজার ভ্রমণ, শুঁটকি, সামুদ্রিক মাছ

আমরা যখন গিয়েছিলাম তখন আমরা স্কুইড ফ্রাই, চিংড়ি ফ্রাই, লইট্টা ফ্রাই খেয়েছিলাম। তবে বলে রাখা ভালো স্কুইড ফ্রাই সবাই খায় না আবার নানা কারনে খেতেও চায় না। সমস্যা নেই, এছাড়াও আরও পাওয়া যায়  কাঁকড়া ফ্রাই, সুরমা মাছ ফ্রাই, কোরাল মাছ ফ্রাই ইত্যাদি। চাইলে এইসব মাছ ফ্রাইও খাওয়া যাবে। সন্ধ্যা বেলায় আলোর মিছিলে দেখা মিলে এইসব সামুদ্রিক মাছের পশরার। এ এক অন্যরকম অনুভূতি।

কক্সবাজার রাতের বেলায় আরেক সৌন্দর্য ধারন করে। দেখে মনে হবে না ঘুমের দেশে চলে এসেছেন। এরই সাথে বসে নানাধরনের দোকান। শুঁটকি কেনার জন্য শ্রেষ্ঠ জায়গা হচ্ছে কক্সবাজার। যারা শুঁটকি খেতে পছন্দ করে তারা এখানে এসে আনন্দে আত্মহারা হয়ে যায়। সবধরনের শুঁটকি পাওয়া যায় এখানে। লইটা শুঁটকি, রূপচাঁদা শুঁটকি, চেপা শুঁটকি, এমনকি ইলিশ মাছেরও শুঁটকি পাওয়া যাবে। যারা ভ্রমণ পিপাসু তারা একই সঙ্গে ভোজনরসিকও হয়। নতুন নতুন জায়গায় ঘুরতে গেলে নতুন নতুন খাবারের সন্ধান তারা করে বেড়ায়।

সি ফুড, কক্সবাজার ভ্রমণ, শুঁটকি, সামুদ্রিক মাছ

এতো গেলো স্ট্রিট ফুডের কথা। শুধু যে রাস্তার পাশের খাবারই পাওয়া যায় তা কিন্তু নয়। কক্সবাজারে রয়েছে বিভিন্ন মানের বিভিন্ন ধরনের খাবারের হোটেল, রেস্টুরেন্ট। হান্ডি রেস্টুরেন্ট, কয়লা রেস্টুরেন্ট, মারমেইড ক্যাফে, নিউ পৌষী ইত্যাদি জায়গা গুলোতে একেকদিন একেক জায়গায় ঘুরে খেতে পারেন।

তবে যাইহোক, সি ফুড না খেলে কক্সবাজার ভ্রমণটাই বৃথা। ভ্রমণ হোক সবার প্রিয় সঙ্গী!

Comments
Tags
Show More

Related Articles

Close