খেলা ও ধুলারাশিয়া বিশ্বকাপ ২০১৮

থাই কিশোরদের বিশ্বকাপ ফাইনাল দেখতে ফিফার আমন্ত্রণ!

পনেরো দিনেরও বেশি সময় থাইল্যান্ডের গুহায় আটকে ছিলেন ১২ জন কিশোর ফুটবলার ও তাদের কোচ। অনেক চেষ্টা চরিত্র করে অবশেষে গতকাল বারো কিশোর ফুটবলার আর তাদের কোচসহ তেরোজনের দলটার সবাইকে জীবিত উদ্ধার করতে সক্ষম হন উদ্ধারকর্মীরা। থাম লুয়াং নামের দশ কিলোমিটার লম্বা গুহার ভেতরে আটকে পড়া এই ছেলেগুলোকে কখন বের করে আনা হবে, আদৌ তাদেরকে জীবিত উদ্ধার করা যাবে কিনা, এই নিয়ে উদ্বিগ্ন ছিল সারা বিশ্বেরর মানুষই।

থাইল্যান্ডের উত্তরাঞ্চলীয় চিয়াং রাই এলাকার থাম লুয়াং গুহায় ঢোকার পর গত ২৩ জুন নিখোঁজ হয় ওই ১৩ জন। ১২ কিশোরের একজনের জন্মদিন উদ্‌যাপন করতে এবং বেড়াতে তারা সেখানে গিয়েছিল। ১২ কিশোরের বয়স ১১ থেকে ১৬ বছরের মধ্যে। তাদের সহকারী কোচ এক্কাপোল জানথাওংয়ের বয়স ২৫ বছর। তারা মু পা নামের একটি ফুটবল দলের সদস্য।

এদিকে রাশিয়ায় মহা সমারোহে চলছে ফুটবল বিশ্বকাপ। নিজেরাও ফুটবলার হওয়ায়, বিশ্বকাপ নিয়ে উৎসাহের কমতি ছিল না ওই কিশোরদের। অথচ গুহায় আটকে পড়ায় বিশ্বকাপের সিংহভাগ অংশই মিস করেছে তারা। একে একে গ্রুপ পর্ব শেষ হয়ে বিশ্বকাপ গড়িয়েছে রাউন্ড অফ সিক্সটিনে, তারপর অনুষ্ঠিত হয়েছে কোয়ার্টার ফাইনালও। সবমিলিয়ে ৬৪ ম্যাচের বিশ্বকাপের ৬১ ম্যাচই ইতিমধ্যে শেষ, কিন্তু ২২ জুনের পর থেকে আর কোন খেলাই দেখা হয়নি তাদের।

তবে বাইরে বেরিয়ে এসে, মুক্ত পৃথিবীর আলো-বাতাস গায়ে মাখার পাশাপাশি তারা পেয়েছে দারুণ একটি সংবাদও। তাদের সামনে এখন সুযোগ রয়েছে আগামী ১৫ জুলাই মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়ামে বিশ্বকাপের ফাইনাল ম্যাচ দেখতে যাওয়ার সুবর্ণ সুযোগ। আর সেজন্য তারা নিমন্ত্রণ পেয়েছে স্বয়ং ফিফা সভাপতি জিয়ান্নি ইনফান্তিনোর কাছ থেকে!

অবশ্য ইনফান্তিনোর এই আমন্ত্রণ এসেছে দিন পাঁচেক আগেই, অর্থাৎ প্রথম দফায় চার কিশোর উদ্ধার হওয়ারও দুইদিন আগে। থাই ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনকে লেখা এক চিঠিতে তিনি বলেন, “সমগ্র আন্তর্জাতিক ফুটবল কম্যুনিটির পক্ষ থেকে আমি আপনাদের সাথে যোগ দিচ্ছি, এবং প্রতিটি খেলোয়াড় ও কোচের পরিবারের প্রতি জানাচ্ছি আমার সহানুভূতি ও সমর্থন। সেই সাথে এই চরম সংকটের মুহূর্তে আমি পাশে দাঁড়াচ্ছি থাইল্যান্ডের সাধারণ জনগণেরও।”

এরপর ফিফা সভাপতি আরও বলেন,

“আমি আশা করছি আমাদের বলা কথাগুলো কোনো না কোনোভাবে তাদেরকে কিছুটা হলেও শান্তি দেবে, এবং এই অনিশ্চয়তা ও দুশ্চিন্তার সময়ে সাহস যোগাবে। যেমনটি আমরা সকলেই আশা করছি, তারা (গুহায় পড়া ১৩ জন) যদি তাদের পরিবারের কাছে বেরিয়ে আসতে পারে এবং তাদের শরীর ভ্রমণের উপযোগী থাকে, তাহলে ফিফা সানন্দে তাদেরকে আমন্ত্রণ জানাচ্ছে আমাদের বিশেষ অতিথি হিসেবে মস্কোয় এসে ফিফা ফুটবল বিশ্বকাপ ২০১৮ এর ফাইনাল উপভোগ করার।”

সুতরাং আমরা ধরে নিতেই পারি, সমূহ সম্ভাবনা রয়েছে বিশ্বকাপের ফাইনালের দিন এই কিশোরদেরকে মস্কো’র লুঝনিকিতে দেখতে পাওয়ার। অবশ্য উদ্ধার হওয়ার মাত্র এই কয়দিনের মাথায় তাদের শরীর লম্বা বিমান ভ্রমণের জন্য সাড়া দেবে কি না, সেটিও এখন চিন্তার বিষয়। যদিও চিকিৎসকেরা বলছেন যে, উদ্ধারকৃত কিশোররা আশঙ্কামুক্ত ও পুরোপুরি সুস্থ রয়েছে। তবে এই মূহুর্তে লম্বা ভ্রমণের অনুমতি তাদেরকে দেয়া হবে না বলেই মনে করা হচ্ছে। 

তারমানে দাঁড়াচ্ছে, মাত্র কয়েকদিন আগেও যারা গুহার ভেতর আটকে পড়ে, নোংরা পানি পান করে মানবেতর জীবনযাপন করছিল, সেই তারাই এখন পেতে যাচ্ছে বিশেষ অতিথি হিসেবে মাঠে বসে বিশ্বকাপ ফাইনাল দেখার সুযোগ। এমন সৌভাগ্য খুব কম মানুষেরই হয়। অবশ্য আর ক’জন মানুষের বেঁচে থাকার জন্যই বা গোটা পৃথিবী একযোগে স্রষ্টার কাছে হাত তোলে! আর ক’জন মানুষই বা নিশ্চিত মৃত্যুর মুখ থেকেও এভাবে ফেরত আসে!

ফিফা সভাপতির জানানো আমন্ত্রণের বিষয়টিকে ইতিবাচকভাবে দেখছে প্রায় সকলেই। ইনফান্তিনোকে সবাই সাধুবাদও জানাচ্ছে এমন একটি উদ্যোগ নেয়ার জন্য। তবে সেই সাথে অনেকে দাবি জানাচ্ছে, শুধু উদ্ধারকৃত কিশোররাই কেন, এমন অভাবনীয় সম্মাননা তো দেওয়া উচিৎ উদ্ধারকাজে নিয়োজিত সকলকেই।

পুরো উদ্ধার প্রক্রিয়ায় ৯০ জনের একটি ডুবুরি দল কাজ করছে। তাদের মধ্যে ৪০ জন থাইল্যান্ডের। অন্যরা বিদেশি। এবং ইতিমধ্যেই তাদের মধ্যে একজন উদ্ধারকর্মী নিজের জীবনও বিসর্জন দিয়েছেন। গত শুক্রবার উদ্ধার অভিযানের একপর্যায়ে কিশোরদের অক্সিজেন সরবরাহ করে ফেরার পথে প্রাণ হারান থাই নৌবাহিনীর সাবেক ডুবুরি সামান কুনান, নেভি সিলের অবসরপ্রাপ্ত এই সদস্য মারা যান অক্সিজেন-স্বল্পতায়।

এ কথা বলাই বাহুল্য যে কতটা ঝুঁকি নিয়ে গোটা উদ্ধারকার্য পরিচালনা করছেন উদ্ধারকর্মীরা। সিনেমার পর্দার অনুরূপ বাস্তবেও যদি কোনো নায়ক থেকে থাকেন, তাহলে সে তো সামান কুনান ও তার মত বাকি উদ্ধারকর্মীরাই! তাই যেকোনো বিবেকবান মানুষই স্বীকার করতে বাধ্য যে একই রকম সম্মাননার দাবিদার তারাও। এখন দেখা যাক, জনসাধারণের অভিমত মেনে ফিফা সভাপতি এই উদ্ধারকর্মী দলকেও বিশ্বকাপ দেখার জন্য আমন্ত্রণ জানান কি না!

ফিচার্ড ছবি- The Football Arena

Comments
Tags
Show More

Related Articles

Close