একাত্তরের ইনগ্লোরিয়াস বাস্টার্ডদের গল্প!

ইনগ্লোরিয়াস বাস্টার্ডস দেখি। জার্মান নাৎসি বাহিনীর নৃশংসতম বর্বরতার শিকার হওয়া কিছু মানুষের গল্প। তাদের উপরে চালানো নির্বিচার গণহত্যার গল্প, যন্ত্রণার গল্প, উঠে দাঁড়াবার গল্প, প্রতিরোধের গল্প, প্রতিশোধের গল্প… ১৯৪১ সাল। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ চলছে। জার্মানী দখল করে নিয়েছে ফ্রান্স। নির্বিচারে ইহুদী নিধন চলছে। এক ইহুদী পরিবার গণহত্যা থেকে বাঁচতে আশ্রয় নিয়েছিল তার ফ্রেঞ্চ প্রতিবেশীর বাড়িতে। কিন্তু আট মাসের মাথায় জার্মান এসএস বাহিনীর কর্নেল হ্যান্স ল্যান্ডারশকুনে দৃষ্টি তাদের ঠিকই খুঁজে বের করে, নির্বিচার গণহত্যা থেকে বেঁচে যায়…

"একাত্তরের ইনগ্লোরিয়াস বাস্টার্ডদের গল্প!"

‘পাকিস্তানী ভাই’ এবং একজন মোস্তফা কামালের গল্প

পাকিস্তানী সেনাবাহিনীর অফিশিয়াল পেইজ “পাকিস্তান ডিফেন্স”-এ ভারত ও বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর ছবিসংবলিত একটা পোষ্ট দিয়ে স্মরণ করিয়ে দেওয়া হয়েছে, ভারত এবং বাংলাদেশের সাথে পাকিস্তানের বহু পুরোনো শত্রুতা, তারা সবসময়ই পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে এসেছে, এবং তারা কিভাবে গাদ্দারী করে পাকিস্তান ভেঙ্গে টুকরো টুকরো করেছিল সেটা যেন পাকিস্তানের তরুণ প্রজন্ম ভুলে না যায়। ছবির ব্যাকগ্রাউন্ডে ১৬ই ডিসেম্বর পাকিস্তানের আত্মসমর্পণের দৃশ্য। পোস্টের নিচে সর্বোচ্চ লাইক পাওয়া কমেন্টটা বাংলাদেশের একজনের, তাতে সে ইংরেজিতে লিখেছে যে, ‘পাকিস্তানিরা আমাদের ভুল বুঝছে,…

"‘পাকিস্তানী ভাই’ এবং একজন মোস্তফা কামালের গল্প"

‘চলেন আখতার ভাই, কিছু পাইক্কা মাইরা আসি!’

ক্র্যাকপ্লাটুনের শহীদ শাফী ইমাম রুমীর মতো তারছিঁড়া বা ক্র্যাকপিপল কনভেনশনাল আর্মিতে সচরাচর দেখা যায় না। কেননা আর্মি মানেই শৃঙ্খলা, কঠোর নিয়মের বেড়াজাল। একাত্তরে পাকিস্তানী আর্মি থেকে বিদ্রোহ করে আসা বাঙ্গালী অফিসাররা সাধারণ গণযোদ্ধাদের নিয়ে যে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী তৈরি করেছিলেন, সেটাও কঠোর শৃঙ্খলা আর সুনিয়ন্ত্রিত ছিল। কিন্তু এরমধ্যেই ছিল কয়েকজন বিচিত্র তারছিঁড়া, তৎকালীন পৃথিবীর অন্যতম সেরা দুর্ধর্ষ পাকিস্তান আর্মির বিরুদ্ধে যুদ্ধে নেমে যেখানে বুক কাঁপাটাই ছিল স্বাভাবিক, সেখানে এই মানুষগুলা ছিল পুরো উল্টো। পাকিস্তানীরা ছিল এদের…

"‘চলেন আখতার ভাই, কিছু পাইক্কা মাইরা আসি!’"

পাকিপ্রেমীদের লাথি দিয়ে বাংলাদেশ থেকে বের করে দেওয়া হোক!

স্বাধীনতার পর ধর্ষিতা বাঙালী মহিলাদের চিকিৎসায় নিয়োজিত অষ্ট্রেলিয় ডাক্তার জেফ্রি ডেভিস গনধর্ষনের ভয়াবহ মাত্রা দেখে হতবাক হয়ে কুমিল্লা ক্যান্টনমেন্টে আটক এক পাক অফিসারকে জেরা করেছিলেন এই বলে- যে তারা কিভাবে এমন ঘৃণ্য কাজ করেছিলো। তাদের সরল জবাব ছিলো; “আমাদের কাছে টিক্কা খানের নির্দেশনা ছিলো, যে একজন ভালো মুসলমান কখনোই তার বাবার সাথে যুদ্ধ করবে না। তাই আমাদের যত বেশী সম্ভব বাঙালী মেয়েদের গর্ভবতী করে যেতে হবে।আমাদের এসব উশৃঙ্খল মেয়েদের পরিবর্তন করতে হবে, যাতে এদের পরবর্তী…

"পাকিপ্রেমীদের লাথি দিয়ে বাংলাদেশ থেকে বের করে দেওয়া হোক!"

যেভাবে পূর্ব পাকিস্তান হলো বাংলাদেশ (কুইজ-১)

ইতিহাস জানতে আমাদের বড্ড অনীহা। কী হয়েছে আগে, এত কিছু জেনে কী লাভ! বাঁচতে হবে তো বর্তমান নিয়েই। কিন্তু রক্তে ভেজা এই স্বাধীনতা পেতে যে হারাতে হয়েছে ৩০ লক্ষ প্রাণ! ৪ লক্ষ মা-বোনের আহাজারিতে ভারী হয়েছে এই জনপদের আকাশ! কী করে ভুলি আমরা নিজেদের এই শেকড়কে? আর তাই আজ থেকে শুরু হলো এগিয়ে চলোর নিয়মিত কুইজ আয়োজন, ‘যেভাবে পূর্ব পাকিস্তান হলো বাংলাদেশ’। কুইজের মাধ্যমেই হোক ইতিহাসের পাঠ। আজ থাকছে প্রথম পর্ব। 

"যেভাবে পূর্ব পাকিস্তান হলো বাংলাদেশ (কুইজ-১)"

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কিছু দুষ্প্রাপ্য ছবি

শেখ মুজিবুর রহমান। বাঙালির ইতিহাসের শ্রেষ্ঠ মহানায়ক ও হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা জন্মেছিলেন আজ। তাঁর কিছু দুষ্প্রাপ্য ছবি প্রকাশিত হলো আজকের এই বিশেষ দিনে।  ছবি কৃতজ্ঞতা- জন্মযুদ্ধ ৭১

"বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কিছু দুষ্প্রাপ্য ছবি"

‘স্বাধীনতা’- এ শব্দটি কীভাবে আমাদের হলো?

সে এক অত্যাশ্চর্য ঘটনা। একাত্তরের মার্চের সেই অদ্ভুত অগ্নিস্রোতে প্রতিদিন তখন মারা যাচ্ছে অগুনতি মানুষ। জনগণের ভোটে নির্বাচিত দল আওয়ামীলীগের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তরের বদলে জেনারেল ইয়াহিয়া তার সেনাবাহিনীকে লেলিয়ে দিয়েছে সাধারণ জনগণের বিরুদ্ধে। বেঁচে থাকা আর মরে যাওয়ার মাঝে ব্যবধানটা ক্রমেই কমে আসা সে মার্চের ৭ তারিখ দুপুরে রেসকোর্স ময়দানের ডায়াসে দাঁড়িয়ে বঙ্গবন্ধু, সামনে স্বাধীনতাকামী লক্ষ লক্ষ মানুষ অধীর আগ্রহে অপেক্ষায়। একটা জাতির সকল আশা-আকাঙ্ক্ষা স্রেফ একটা মানুষের কণ্ঠনিঃসৃত নির্দেশের অপেক্ষায়! কি বলবেন বঙ্গবন্ধু? আকাশে…

"‘স্বাধীনতা’- এ শব্দটি কীভাবে আমাদের হলো?"

সারাদিন উচ্চস্বরে ভাষণ বাজালেই কি বঙ্গবন্ধুকে সম্মান দেয়া হয়?

“পাকিস্তান এক সুন্দর ফুলের ফুলদানীর নাম আর শেখ মুজিব সেখানে এক বিষাক্ত মৌমাছি। সে সমস্ত মধু শুষে নেবে এবং হাতুড়ি দিয়ে এই ফুলদানীকে ভেঙ্গে চৌচির করবে।” ষাটের দশকের এক পাকিস্তানি দার্শনিকের ভবিষ্যৎবাণী এটা। পাকিস্তান নামক দেশটি প্রতি বছর ১৬ ডিসেম্বর ঢাকা পতন দিবস পালন করে। দুঃখ দুঃখ মনে টক-শো করে, বিশ্লেষণ করে, কেন পাকিস্তানের পতন হলো? বিভিন্নভাবে বিশ্লেষণ করে তারা দেখান সব কিছুর পেছনে মুজিব ব্যাটাই দায়ী। বিরোধী শিবিরকে জানাটা এজন্যই জরুরি… আমাদের দেশে মুক্তিযুদ্ধের…

"সারাদিন উচ্চস্বরে ভাষণ বাজালেই কি বঙ্গবন্ধুকে সম্মান দেয়া হয়?"

“পাকিস্থানের পতাকা/ জ্বালিয়ে দাও- পুড়িয়ে দাও”

পহেলা মার্চ রাতেই বঙ্গবন্ধু সংবাদপত্রে এক দীর্ঘ বিবৃতি দেন (দৈনিক আযাদ,সংবাদ; ২রা মার্চ-১৯৭১)। তিনি বলেন “….সমগ্র বাংলাদেশ স্বতঃস্ফূর্ত বিক্ষোভ প্রদর্শনের মাধ্যমে বিশ্ববাসীর সামনে প্রমান করে দিয়েছে যে, বাঙালিরা আর নির্যাতিত হতে রাজী নয় এবং তারা একটি ‘স্বাধীন দেশের স্বাধীন নাগরিক’ হতে দৃঢ়সংকল্প….” ওই দিনেই তিনি দুপুরের দিকে হোটেল পূর্বানীতে ডেকে পাঠালেন সিরাজুল আলম খান, শেখ ফজলুল হক মনিদের। আর বললেন স্বাধীন বাংলা ছাত্র সংগ্রাম পরিষদ গঠন করতে। উল্লেখ করার মতো বিষয় হলো সেদিন ছাত্র ইউনিয়নের…

"“পাকিস্থানের পতাকা/ জ্বালিয়ে দাও- পুড়িয়ে দাও”"

‘জয় বাংলা কোন সাধারণ পলিটিকেল শ্লোগান নয়’

পহেলা মার্চ, ১৯৭১। দুপুর ১টা। ঢাকা স্টেডিয়ামে (বর্তমান বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়াম) ২৬ ফেব্রুয়ারি শুরু হওয়া আন্তর্জাতিক একাদশের বিপক্ষে পাকিস্তানের বেসরকারি টেস্ট ম্যাচের চতুর্থ দিনের খেলা চলছে। ব্যাট করতে নামছে পাকিস্তান।ব্যাটসম্যানদের ব্যাটের ডিজাইনটা তরবারির মতো। ঠিক যেন জুলফিকার আলী ভুট্টোর নির্বাচনী প্রতীক। জুয়েল বলে ওঠে, “দেখ দেখ মাউড়াগুলান তরবারি মার্কা ব্যাট নিয়া নামছে।” সবাই কৌতূহল মেশানো আগ্রহ নিয়ে অপেক্ষায় আছে কখন রকিবুল হাসান নামবে। একসময় রকিবুল নামলো, পাকিস্তান টেস্ট দলে প্রথম বাঙালি টাইগার, মাঠে নামার মুহূর্তেই সৃষ্টি হল…

"‘জয় বাংলা কোন সাধারণ পলিটিকেল শ্লোগান নয়’"

২ টাকার নোট থেকেই জানা যাবে ভাষা আন্দোলনের ইতিহাস!

প্রযুক্তির কল্যাণে এখন ইতিহাস জানা যায় মুঠোফোন থেকেই। রাইজ আপ ল্যাবস স্মার্টফোন ব্যবহারকারীদের একুশে ফেব্রুয়ারির ইতিহাস জানাতে নিয়েছে এসেছে নতুন একটা অ্যাপ, “১৯৫২”। ২ টাকার নোটকে কেন্দ্র করে অগমেন্টেড রিয়েলিটিতে তৈরি অ্যাপটি ভাষা আন্দোলনের সচিত্র বর্ণনা একটি এনিমেশনের মধ্য দিয়ে ব্যবহারকারীর নিকট ফুটিয়ে তুলবে। তথ্য, যোগাযোগ ও প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক বাংলাদেশ শিশু একাডেমীতে অনুষ্ঠিত “ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলা-২০১৭”-এ  অ্যাপটি আনুষ্ঠানিকভাবে উন্মোচন করেছেন। টাকাকে কেন্দ্র করে ভাষা আন্দোলনের বর্ণনার এরূপ অ্যাপ্লিকেশন আগে কেউ করেনি। তাই এই…

"২ টাকার নোট থেকেই জানা যাবে ভাষা আন্দোলনের ইতিহাস!"

একুশের ভাষা আন্দোলন সম্পর্কে কতটুকু জানি আমরা? (কুইজ)

একুশে ফেব্রুয়ারি নানাভাবে উদযাপনের হিড়িক দেখে মনে শংকা জাগে, কতটুকু জানি আমরা আমাদের শেকড় সম্পর্কে? মনে জাগে প্রশ্ন, কতটুকু জানি আমাদের মহান ভাষা আন্দোলন সম্পর্কে? যাদের জন্য আজ বাংলা ভাষায় কথা বলতে পারছি, নিজের অনুভূতি প্রকাশ করছি; তাঁদের আমরা জানি তো, চিনি তো? ইতিহাসের পাঠ নেওয়ার তরে তাই খুবই ক্ষুদ্র একটি আয়োজন- এই কুইজ।

"একুশের ভাষা আন্দোলন সম্পর্কে কতটুকু জানি আমরা? (কুইজ)"