২০১৭ সাল শেষ হতে আর বাকী মাত্র একদিন! সবাই হিসাবনিকাশ করা শুরু করে দিয়েছে কী পেল আর কী হারালো। এইবছর অনেককিছুই ঘটেছে। ভালো-খারাপ মিলেই ছিল বছরটি। কিন্তু এই বছর আমরা যা সবচাইতে বেশি দেখেছি, তা হলো তারকাদের বিচ্ছেদ! একটু ঘুরে দেখলে মনে হবে বছরটি যেন ছিল তারকাদের বিচ্ছেদের জন্যই। যেহেতু তারকাদের জীবনধারা আমাদের জীবনের উপর খুব প্রভাব ফেলে, তাই এই বিচ্ছেদের বছরটিকে আমরা কীভাবে নেব, এটিই হচ্ছে প্রশ্ন।

অন্যদিকে এইবছর আমরা পেয়েছি জীবনধারার মান পরিবর্তন হওয়ার অনেক উপায়। যেখানে উবার, পাঠাও থেকে শুরু করে এসেছে নতুন নতুন অনেক মাধ্যম। ফেসবুক মেতেছে অদ্ভুত অদ্ভুত অনেক অ্যাপস নিয়ে। সারাহা নামক অ্যাপস নিয়ে তুমুল তোলপাড় ছিল ফেসবুকের ওয়ালে। আবার ছোটবেলার লুডুর নতুন রুপ লুডু স্টার ছিল এইবছরের সবচাইতে আলোচিত গেম। ডিজিটাল মার্কেটিংয়ে এসেছে নতুন ধারা। ব্যাঙের ছাতার মতো বেড়েছে ডিজিটাল এজেন্সির সংখ্যাও। খেতে পছন্দ করা জাতি হিসেবে আমরা এই বছর পেয়েছি অনেক বিদেশী চেইনশপ। ভিন্ন ভিন্ন খাবারের দোকানের সাথে, ফুড কার্টও ছিল পাওয়ার অংশ হিসেবে।

আবার নতুন মেয়রের বদৌলতে একটু করে হলেও আমরা রাস্তা পরিষ্কার করতে শিখেছি। একে অপরের প্রয়োজনে এগিয়ে আসতে শিখেছি। সতর্ক হয়েছি অনেক ছোট-বড় ব্যাপারে। তথ্য প্রযুক্তিতে এগিয়ে গিয়েছি আমরা অনেকখানি। ‘সোফিয়ার’ আগমন ছিল আলোচিত একটি বিষয়। অর্জন করেছি আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি, ৭ই মার্চের ভাষণকে দেয়া হয়েছে নতুন অধ্যায়।

চলচ্চিত্রে এসেছে অনেক পরিবর্তন। নতুন আঙ্গিকে আমাদের সামনে এসেছে অনেক ভালো ভালো কিছু সিনেমা। নতুন মুখ, নতুন ডিরেক্টর, নতুন ধারার সিনেমা এখন আমরা আধুনিক সিনেমা হলে গিয়েই সিনেমা দেখি। খেলতে আমরা এখন আর ভয় পাই না। চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির সেমিফাইনালে খেলেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট টিম। শুধু যে ছেলেরাই বিশ্বের দরবারে বাংলাদেশের নাম উজ্জ্বল করছে তা কিন্তু নয়। মেয়েরাও এখন খেলে বাংলাদেশের নাম ছড়িয়ে দিচ্ছে গর্বের সঙ্গে। তবে ২০১৭ সালে অনেক খারাপ সময়ও গিয়েছে। এর মধ্যে বনানী রেইন ট্রির ধর্ষণ, পাহাড় ধস, রোহিঙ্গা ইস্যু,  প্রিয় মেয়রের মৃত্যু, বারী সিদ্দিকিসহ হারিয়েছি আমরা আরও অনেক ভালো ও গুণী মানুষদের। বছরজুড়েই ধর্ষণ আর গুম ছিল নিত্যনৈমিত্তিক ঘটনা। 

কথায় আছে, “শেষ ভালো যার সব ভালো তার”। আমরা খারাপগুলোকে ভুলে ভালোকে নিয়ে সামনে এগিয়ে যাবো, এটিই সকলের প্রত্যাশা। গেল বছরে কি হলো তা থেকে শিক্ষা হিসেবে গ্রহণ করে নতুন বছরকে স্বাগতম জানানোই হবে বুদ্ধিমানের কাজ। ২০১৮ সাল কেমন যাবে কিংবা কেমন যাওয়া উচিৎ না ভেবে জীবনকে জীবনের নিয়মে চলতে দেয়া হোক। সময় যে থেমে থাকে না। লাইফ গোজ অন! 

পরিশেষে, ভালো খারাপ মিলেই জীবন। জীবনে যদি একটু খারাপ সময় না আসে তাহলে আমরা ভালো সময়ের মূল্য দিতে শিখবো না। এছাড়াও পরিবর্তন আনতে হলে আগে নিজেকে বদলে যেতে হবে। দেশ অনেক এগিয়ে গিয়েছে নির্দ্বিধায় বলতে পারি। কিন্তু আমরা মানুষগুলো যদি বদলাই তাহলে সামনের বছর গুলোতে আমরা আধুনিক এবং উন্নত দেশ হিসেবে নিজেদের পরিচয় দিতে পারবো। বড়দের সম্মান এবং ছোটদের প্রতি শ্রদ্ধাবোধ বাড়িয়ে দেশকে ভালবাসুন! একে অপরের সাহায্যে এগিয়ে আসুন। নতুন বছরের শুভেচ্ছা সকলকে।

Comments
Spread the love